শনিবার , ২৬ মে ২০১৮
শিরোনাম

মন্ত্রীর সামনেই এমপি রহিম উল্লাহকে যুবলীগের চড়-থাপ্পর

Rohimullah_MPফেনী: সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিতিতে ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা হাজি রহিম উল্লাহকে মারধর করেছে যুবলীগ কর্মীরা। ফেনী সার্কিট হাউজে শনিবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও দলীয় সূত্র জানায়, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নোয়াখালীর দলীয় কর্মসূচি শেষে ফেনী সার্কিট হাউজে পৌঁছলে দলীয় নেতাকর্মীরা তার সঙ্গে দেখা করতে ভিড় জমায়। এ সময় ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেদ্দা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাজি রহিম উল্লাহ, ফেনী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকমসহ বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচনী এলাকা দাগনভূঞা ও সোনাগাজীতে টিআর কাবিখা বণ্টনসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কাজে মূল্যায়ন না করার অভিযোগ এনে দলীয় নেতাকর্মীরা হাজি রহিম উল্লাহর ওপর চড়াও হন। বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে তাকে কিল-ঘুষি দিয়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।

এ সময় তার সঙ্গে থাকা সোনাগাজী পৌর কাউন্সিলর আইয়ুব খান, শেখ মামুন, যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্য আরু মিয়া, জাতীয় পার্টি নেতা সিরাজুল ইসলাম, শাহিন, ইসমাইল হোসেন ও এমদাদ হোসেনসহ অন্তত আট/দশজন আহত হয় বলে হাজি রহিম উল্লাহ অভিযোগ করেন।

রহিম উল্লাহ জানান, ঘটনার সময় সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এশার নামাজ পড়ছিলেন। হই-হট্টগোল শুনে মন্ত্রী ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করেন। একপর্যায়ে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মুহাম্মদ শামসুল আলম সরকার ঘটনাস্থলে গিয়ে এমপিকে উদ্ধার করে পুলিশ পাহারায় সোনাগাজীর নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেন।

জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবদুর রহমান বিকম দলীয় নেতাকর্মীদের হাতে হাজি রহিম উল্লাহ লাঞ্ছিত হওয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের কাছে অস্বীকার করেন।

এর আগে দাগনভূঞার শরীফপুর গ্রামের কাচা রাস্তা পরিদর্শন ও স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে মতবিনিময় সভার কথা ছিল ফেনী-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাজি রহিম উল্লাহর।

এজন্য এমপিকে অভিনন্দন জানিয়ে নারায়নপুর রাস্তার মাথা ও শরীফপুর গ্রামে দুইটি তোরণ নির্মাণ করা হয়। নারায়ণপুর রাস্তার মাথার তোরণটি অনুষ্ঠান শুরুর এক ঘণ্টা আগে দুপুর আড়াইটার দিকে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে তোরণটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বিকাল তিনটার দিকে সংসদ সদস্য রহিম উল্লাহ অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছলেও আতঙ্কে লোকজনের উপস্থিতি ছিল কম। তিনি ১০ মিনিট উপস্থিত কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত সভাস্থল ছেড়ে যান।

৫ জানুয়ারি নির্বাচনে ফেনী-৩ আসনে দলীয় মনোনয়ন বঞ্ছিত হয়ে মহাজোট প্রার্থী রিন্টু আনোয়ারকে হারিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন স্বতন্ত্র প্রার্থী হাজি রহিম উল্লাহ। নির্বাচনের পর থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে স্থানীয় আধিপত্য নিয়ে দূরত্ব বাড়তে থাকে সৌদি প্রবাসী এ ধনকুবেরের।

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes