শনিবার , ২৬ মে ২০১৮
শিরোনাম

এইচ টি ইমামের ক্ষমা চাওয়া উচিত

Emaj_uddinঢাকা: লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের চাকরির বিষয়টি সরকার দেখবে বলে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম যে বক্তব্য দিয়েছেন, এজন্য তার জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর এমাজ উদ্দিন আহমদ।

 

শুক্রবার  রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা তরুণ ছাত্রদের চাকরির জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এজন্য তার জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। কারণ শুধু লিখিত পরীক্ষায় পাশ করে যদি চাকরি পাওয়া যায়, তাহলে মেধাবীরা কোথায় যাবে? তিনি বলেন, প্রশাসনিক ব্যবস্থা সঠিকভাবে পরিচালনা না করলে সুশাসন সম্ভব নয়।

 

দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা প্রতিষ্ঠায় ৭ নভেম্বরের ভূমিকা শীর্ষক এ মুক্ত আলোচনার আয়োজন করে স্বাধীনতা ফোরাম নামে একটি সংগঠন।

 

ঢাবির সাবেক উপাচার্য এমাজ উদ্দিন আহমদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মূল্যায়ন করে বলেন, সামরিক বাহিনীর কর্মী হয়েও এদেশের উন্নয়নে এতো নিখুঁত চিন্তার মানুষ একজনই ছিলেন। যিনি হলেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান।

 

তিনি আরো বলেন, যুবশক্তিকে কাজে লাগানো, নারী ক্ষমতায়ন, আধাশিক্ষিত-নিরক্ষর যুবকদের বিদেশে পাঠানো সব ধরনের পরিকল্পনা তিনি দেশের জন্য করে গেছেন। যার সুন্দর প্রতিফলন আজও দেশের জনগণ ভোগ করছে।

 

স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মো. রহমতল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য বিএনপির স্থায়ী কমিপির সদস্য গয়েশ্বর রায়, বিএনপির চেয়ারপারনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার পারভেজ আহমেদ, স্বাধীনতা ফোরামের সহ-সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ বাবুল।

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes