সোমবার , ২৮ মে ২০১৮
শিরোনাম

নিউজিল্যান্ডকে ফলো-অন না করিয়ে ব্যাটিংয়ে পাকিস্তান

rahat৭১ বাংলা :তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তানের বিপক্ষে ফলো-অনে পড়েছে নিউজিল্যান্ড।কিন্তু নিউজিল্যান্ডকে ফলো-অন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামবে পাকিস্তান ।

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের করা ৩ উইকেটে ৫৬৬ রানের জবাবে ২৬২ রানেই সব উইকেট হারিয়ে ফেলে কিউইরা।
মঙ্গলবার বিনা উইকেটে ১৫ রান নিয়ে খেলতে নেমে প্রথম ঘণ্টায় বড় ধরনের ধাক্কা খায় কিউইরা। দিনের প্রথম ম্যাককালাম-লাথাম স্বাচ্ছন্দে খেলতে থাকলেও একটু পরই ছন্দপতন ঘটে। দলীয় ৩৩ থেকে ৪৭- এই রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় কিউইরা। একে একে ফিরে যান ম্যাককালাম (১৮), কেন উইলিয়ামসন (৩) ও রস টেলর (৩)।

তবে চতুর্থ উইকেট জুটিতে কোরি আন্ডারসনকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ওপেনার টম লাথাম। এই দুজন ৮৩ রানের জুটি গড়ে দলকে বিপদমুক্ত করার চেষ্টা করেন। তবে রাহাত আলী ও মোহাম্মদ হাফিজের জোড়া আঘাতে আবার ব্যাকফুটে চলে যায় নিউজিল্যান্ড। ৩ উইকেটে ১৩০ রান থেকে ৫ উইকেটে ১৫০ রানে পরিণত হয় দলটি। ফিরে যান কোরি আন্ডারসন (৪৮) ও জেমস নিশাম (১১)।

এরপর ফের প্রতিরোধ গড়ে তোলেন লাথাম। ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে বিজে ওয়াটলিংকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান এই ওপেনার। তুলে নেন সেঞ্চুরি। তবে সেঞ্চুরির পরই ফিরে যান লাথাম। ব্যক্তিগত ১০৩ রান করে রাহাত আলীর বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। তার ২২২ বলের ইনিংসে ১৩টি চারের মার রয়েছে। এরপর ক্রেইগ (২) রান আউটের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরলে ফলো-অনের শঙ্কা আরো ঘনিভূত হয় কিউইদের।

পাকিস্তানের হয়ে রাহাত আলী চারটি ও জুলফিকার বাবর  তিনটি হাফিজ একটি উইকেট নেন ।

এর আগে আহমেদ শেহজাদের অনবদ্য ১৭৬ রানের পাশাপাশি মিসবাহ ও ইউনিসের জোড়া সেঞ্চুরিতে  তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে রানের পাহাড় গড়েছে পাকিস্তান। টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকেলে ৩ উইকেটে ৫৬৬ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে পাকরা।

পাকিস্তানের হয়ে শেহজাদের ১৭৬ রানের পর ইউনিস খান ১০০ ও মিসবাহ ১০২ রানে অপরাজিত ছিলেন। এছাড়া হাফিজ ৯৬ ও আজহার আলী ৮৭ রান করেন।

সোমবার টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ১ উইকেটে ২৬৯ রান নিয়ে খেলতে নামে পাকরা। লাঞ্চের আগে আহমেদ শেহজাদ ১৭৬ রান করে কোরি আন্ডারসনের বলে ‘দুর্ভাগ্যবশত’ হিট উইকেট আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন। শেহজাদের ডাবল সেঞ্চুরি মিসের কিছুক্ষণ পর সেঞ্চুরি মিস করেন আজহার আলীও। ৮৭ রান করে সোধির বলে বোল্ড হয়ে ফিরেন তিনি।

দলীয় ৩৭৩ রানে তৃতীয় উইকেট পতনের পরের গল্পটুকু মিসবাহ আর ইউনিসের। দুজন অবিচ্ছিন্ন ১৯৩ রানের জুটি গড়েন এবং দুজনই সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেন।

ইউনিস খানের ১৪১ বল ১০০ রানের ইনিংসটি ১০টি চারে সাজানো ছিলো। ১৬২ বলে ১০২ রানের ইনিংসে মিসবাহ ৯টি চার ও একটি ছক্কা মারেন।

কিউইদের হয়ে কোরি আন্ডারসন দুটি ও সোধি নেন একটি উইকেট।

 

এফএফ

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes