সোমবার , ২৮ মে ২০১৮
শিরোনাম

‘হয়রানির ভয়ে পুলিশের কাছে যায় না নারীরা’

bbc bangla৭১বাংলা : পুলিশ বাহিনীর ওপর আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গে অনিয়মের অভিযোগ যে উঠেছে এটা আংশিক সঠিক।পুলিশের কাছে গেলে বেশিরভাগ সময়ই ভালো বিচার পাওয়া যায় না। বিশেষ করে নারীরা হয়রানির শিকার হলেও আরো হয়রানির ভয়ে পুলিশের কাছে যায় না।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে বিবিসি বাংলাদেশ সংলাপে আলোচকরা এসব কথা বলেন। সংলাপের এ পর্বে প্যানেল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম, অ্যাকশন এইড বাংলাদেশের ক্যান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির ও অভিনেত্রী সুমনা সোমা।

একটি জরিপের উহারণ দিয়ে ফারাহ কবির বলেন, “৮০ ভাগ নারী বিভিন্ন জায়গায় হয়রানি হওয়ার পরেও তারা পুলিশের কাছে যায় না। তারা মনে করেন পুলিশের কাছে গেলে আরে বেশি হয়রানি হতে হয়। সরকারকে অবশ্যই বিষয়টা দেখতে হবে।”

সুমনা সোমা বলেন, “পুলিশের কাছে গেছে সব সময় ভালো বিচার পাওয়া যায় না এটা ঠিক। তবে আমাদের অবশ্যই পুলিশের কাছে যেতে হবে।”

হাসানুল হক ইনু বলেন, “পুলিশ বাহিনী একটি সুশৃঙ্গল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এই বাহিনীর কতিপয় সদস্যের ওপর আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে এটা ঠিক। তবে এই অভিযোগ বৃটিশ ও পাকিস্তান আমলেও ছিল। তবে এটা যদি পুরো বাহিনীর ওপর এই অভিযোগ ওঠে সেটা উদ্বেগজনক।”

পুলিশ বিভিন্ন সময় শাসকদের হয়ে কাজ করেছে তাই পুলিশের মানসিক পরিবর্তন হওয়া প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেন এই মন্ত্রী।

এসময় তিনি ১ নভেম্বর সারাদেশে ভয়াবহ বিদ্যুত বিপর্যরে সময় দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ বাহিনীর প্রশংসা করেন।

হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, “মানবাধিকার কমিশনার যে কথা বলেছেন তা অল্পই বলেছেন। কারণ একটি জেলার পুলিশ হলে সাত খুন মাপ। পুলিমের বিরুদ্ধে এধনের অভিযোগ আগেও উঠেছে তবে এটা এথন আরো বেড়েছে। কারণ পুলিশ এখন মন্ত্রীর জামাই।”

তিনি বলেন, “পুলিশ বাহিনীকে দিয়ে বর্তমানে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। ফখরুল সাহের মত মানুষের নামে দিয়েছে ময়লার গাড়ি পোড়ানোর মামলা। আমি একজন মন্ত্রী ছিলাম আমার বিরুদ্ধে দিয়েছে পুলিশ কনস্টেবলকে মারার মামলা।”

অনুষ্ঠানটির প্রযোজনা করেন ওয়ালিউর রহমান মিরাজ এবং উপস্থাপনা করবেন শারমিন রমা।

বিবিসি মিডিয়া অ্যাকশন ও বিবিসি বাংলা যৌথভাবে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেন ওয়ালিউর রহমান মিরাজ এবং উপস্থাপনা করেন শারমিন রমা।

 

 

এমআর

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes