শনিবার , ২৬ মে ২০১৮
শিরোনাম

বেগম রোকেয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে বয়কট

bru৭১বাংলা :  স্বেচ্ছাচারী মনোভাবের অভিযোগ এনে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. একেএম নূর-উন-নবীকে বয়কট করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

উপাচার্যের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটরিয়ায় এক সংবাদ সম্মেলনে তাকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত বয়কটের ঘোষণা দেন সমিতির নেতারা। এর মধ্যে এসব অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে ওই দিন শিক্ষক সমিতির সভায় পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. পরিমল চন্দ্র বর্মন বলেন, উপাচার্য অধ্যাপক একেএম নূর-উন-নবীর বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের ১৮ মাস পার হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাঠামোগত দৃশ্যমান কোন উন্নয়ন হয়নি। বরং তার স্বেচ্ছাচারী মনোভাবের কারণে আগের উন্নয়ন কাজগুলোও থমকে আছে। তিনি উপাচার্য হিসেবে যোগদানের দেড় বছরে দুই মাসও অফিস করেননি।

 বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের পদটি গত বছরের ১৭ আগস্ট থেকে খালি থাকলেও তিনি কাউকে নিয়োগ না দিয়ে নিজেই দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন অভিযোগ করে শিক্ষক সমিতির

এ নেতা বলেন, দুটি অনুষদের ডিন,ওয়াজেদ মিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক, কয়েকটি বিভাগের প্রধানসহ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্পের পরিচালক পদেও ড. নূর-উন-নবী এককভাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এতসব পদে থাকা সত্ত্বেও তিনি বেশিরভাগ সময় ঢাকায় অবস্থান করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকাণ্ড ব্যাহত হচ্ছে অভিযোগ করে ড. বর্মন বলেন, ছাত্রদের আবাসিক হল, কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়া ও মসজিদের কাজ অনেক আগে শেষ হলেও সেগুলো চালু না করে উপাচার্য শিক্ষার্থীদের সুবিধাবঞ্চিত করছেন। সর্বশেষ ২৭ জন প্রভাষকের সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি নিয়েও তিনি জটিলতা সৃষ্টি করেন।

এ বিষয়ে শিক্ষক সমিতি গত ২৮ অক্টোবর উপাচার্যকে স্মারকলিপি দিলেও তিনি কোনো উদ্যোগ নেননি বলে অভিযোগ করেন শিক্ষক সমিতির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. সাইদুল হক, যুগ্ম সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ সাজেদুল হক, ড. হাফিজুর রহমান সেলিম, ড. তুহিন ওয়াদুদ প্রমুখ।

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes