রবিবার , ২৭ মে ২০১৮
শিরোনাম

কেমন কাটছে রেলমন্ত্রীর নতুন সংসার

mujibul2৭১বাংলা : বিয়ে করে বহু আলোচিত হয়েছেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব। বিয়ের পরের দিন শনিবার সারাদিন বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন, জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় বিয়ের খবর ও ছবি ছাপা হয়েছে। নতুন জীবনের প্রথম দিন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক ও নববধূ রিক্তা দুজনেই ছিলেন প্রাণোচ্ছ্বল।  পরিবার ও স্বজনদের সঙ্গে পরিচয়, একসঙ্গে সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার সব মিলিয়ে নতুন জীবনের প্রথম দিনটি হাসিখুশিই কেটেছে আলোচিত এ নবদম্পতির।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে বিয়ে শেষে নতুন জীবনের সঙ্গী হনুফা আক্তার রিক্তাকে নিয়ে শুক্রবার রাতে ঢাকার বেইলি রোডে মন্ত্রীর জন্য বরাদ্দ বাসভবনে উঠেন মো. মুজিবুল হক। শনিবার সারা দিন সর্বস্তরের মানুষের মুখে মুখে ছিলে রেলমন্ত্রীর বিয়ের খবর। নানা রকম আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন নতুন এই দম্পতি।

রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিবের সংসার জীবনের প্রথম দিন যেভাবে কাটালেন তা নিয়েও ব্যাপক আগ্রহ ছিল সাধারণ মানুষের। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি সকাল ৮টায় ঘুম থেকে ওঠে গোসল শেষে নববধূকে নিয়ে বসেন নাস্তার টেবিলে। রুটি, সবজি, ডিম ভাজি, কলা, আপেল, মিষ্টি, চা, শ্বশুর বাড়ির পিঠা দিয়ে নাস্তা সারেন দুজনে।

পরে মন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব তার জীবনসঙ্গী রিক্তাকে বাড়ির বিভিন্ন রুম এবং স্থান ঘুরে দেখান। তারপর পরিবারের এবং তার সহযোগীদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন সহধর্মিণী রিক্তাকে। দুপুরে নতুন এই বধূকে নিয়ে একসঙ্গে খাবার খান। দুপুরের খাবারে ছিল ইলিশ ভাজা, রুই মাছের তরকারি, ডাল ও দই।

এদিকে নতুন দম্পতিকে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ইয়াসেফ ওসমান, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, মহিলা এমপি সাবিনা আক্তার তুহিনসহ অন্যান্যরা।

এ ছাড়া কিছু গণমাধ্যম কর্মীও বিভিন্ন খবর জানতে গিয়েছিলেন তার বাসায়। কথা বলেছেন মিডিয়াকর্মীদের সঙ্গে। পড়েছেন বিভিন্ন পত্রিকাও। রোববার যথাররীতি নিজ মন্ত্রণালয়ে অফিস করবেন মন্ত্রী।

সংসার জীবনে প্রথমদিন কেমন কাটালেন এমন প্রশ্নের উত্তরে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিব এ প্রতিবেদককে বলেন, সকালে ঘুম থেকে উঠার পর অফিসিয়াল একটি ফাইল দেখেছি।

বাসায় আত্মীয়স্বজন আসছে, সবাই আমাদের দুজনকে দোয়া করেছে। আমরাও দোয়া চেয়েছি আত্মীয়স্বজনের কাছে। আত্মীয়স্বজন ও দলীয় নেতাদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করা হয়। সকালে বড় ভাই, ভাতিজি, ভাতিজার বউ, নাতি, নাতনিদের নিয়ে একসঙ্গে নাস্তা করি। দুপুরে ইলিশ ভাজা, রুই মাছ ও ডাল দিয়ে খাবার খাই।

আপনার স্ত্রী হনুফা আক্তার রিক্তাকে পরিবার ও স্টাফদের সঙ্গে পরিচয় হয়েছে কি এমন প্রশ্নের উত্তরে রেলমন্ত্রী বলেন, পরিচয় হচ্ছে। আস্তে আস্তে চিনবে সবার সঙ্গে পরিচয় হয়ে যাবে। রিক্তা নিজের ঘর ও অন্যান্য রুম ঘুরে দেখেছেন। সংসার জীবন প্রথম দিন আনন্দঘন পরিবেশে ও দোয়া চাওয়ার মধ্যে দিয়ে কাটে। সারা দিন বাসায় ছিলাম।

 

 

এমআর

 

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes