সোমবার , ২৮ মে ২০১৮
শিরোনাম

নিজামীর সংক্ষিপ্ত রায় পড়া শুরু

৭১ বাংলা: একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের জন্য অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীর মামলায় রায় পড়া শুরু করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

বুধবার সকাল ১১টা ৭ মিনিটে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর সদস্য বিচারপতি আনোয়ারুল হক ২০৪ পৃষ্টার এ রায় পড়া শুরু করেন। এর আগে সকাল ১১টায় বিচারপতিরা এজলাসে প্রবেশ করেন।

nizami

এর আগে সকাল ৯টা ২৫ মিনিটে প্রিজন ভ্যানে নিজামীকে নিয়ে ট্রাইব্যুনালে পৌঁছেন কারারক্ষিরা।

কাঠগড়ায় ওঠানোর আগে হাজতখানায় নিজামীকে বেশ চিন্তিত দেখা গেছে। মুখে হাত দিয়ে বসা ছিলেন তিনি।

নিজামীর এ রায়ের জন্য অপেক্ষায় রয়েছে পুরো জাতি। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধারা ফাঁসির দাবিতে ব্যানার নিয়ে ট্রাইব্যুনালের সামনে মানবন্ধন করছেন।

এদিকে নিজামীর সর্বোচ্চ সাজার দাবিতে রায় পড়া শুরুর আগে থেকেই শাহবাগে দুভাগে অবস্থান করছে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার ও কামলা পাশার গ্রুপ। তারা নিজামীর ফাঁসির দাবিতে স্লোগান দিচ্ছেন। রায় ঘোষণা শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা শাহবাগের ওই প্রজন্ম চত্বরেই অবস্থান করবেন। একাত্তরের আল বদর বাহিনীর প্রধান ও মানবতা বিরোধী এই অপরাধীর সর্বোচ্চ শাস্তির রায় নিয়েই ঘরে ফিরবেন- এমন প্রত্যয় তাদের মধ্যে।

রাষ্ট্রপক্ষ নিজামীর সর্বোচ্চ সাজা আশা করছে। অপরদিকে নিজামী নির্দোষ প্রমাণিত হয়ে খালাস পাবেন বলে আশা করছেন আসামি পক্ষের আইনজীবীরা।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার নিজামীর মামলার রায় ঘোষণার জন্য বুধবার দিন ধার্য করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৪ জুন এ মামলার রায় ঘোষণার জন্য দিন ধার্য থাকলেও আসামি মতিউর রহমান নিজামী অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে আদালতে উপস্থিত করা হয়নি। এ কারণে রায় পিছিয়ে চতুর্থবারের মতো অপেক্ষমাণ রাখা হয়।

গত বছরের ১৩ নভেম্বরও অপেক্ষমান (সিএভি) রাখা হয়েছিল মামলাটি। সেদিন আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থানের দিন ধার্য থাকলেও হরতালের কারণে না আসায় সময় আবেদন খারিজ করে মামলার কার্যক্রম শেষ করে দেন ট্রাইব্যুনাল।

এরপর ২০ নভেম্বর উভয়পক্ষের আইনজীবীদের সমাপনী বক্তব্য শেষে রায় অপেক্ষমান রাখেন আদালত।

নিজামীর বিরুদ্ধে একাত্তর সালে পাবনার বিভিন্ন জায়গায় হত্যা, গণহত্যা, ধর্ষণ, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগসহ মোট ১৬টি অভিযোগ ট্রাইব্যুনালে উপস্থাপন করা হয়েছে। এসব অভিযোগের মধ্যে হিন্দু সম্প্রদায়রে ওপর এবং ছাত্র-শিক্ষকসহ বিভিন্ন সাধারণ মানুষের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে। এসব অপরাধ কখনো তার নির্দেশে আবার কখনো তার আদেশে সংগঠিত হয়েছে।

এআর

BIGTheme.net • Free Website Templates - Downlaod Full Themes