Friday , 3 April 2020
শিরোনাম
বাজে! জঘন্য! তীব্র জঘন্য!

বাজে! জঘন্য! তীব্র জঘন্য!

২০০৭, ২০১১ আর ২০১৫ তে বাংলাদেশ তিনটা করে ম্যাচ জিতসিল ৷ এই ওয়ার্ল্ড কাপেও সেই একই, আমরা তিনটাই জিতলাম ৷ টপ চারটা সাইডের একটাকেও আমরা হারাতে পারি নাই ৷ শ্রীলঙ্কা আর পাকিস্তানকে দেখেন, তারা টপ সাইড গুলোকে হারাইসে ৷ আমরা যাদেরকে হারাইসি তাদেরকে মোটামুটি এই ওয়ার্ল্ড কাপে সবাই হারাইসে ৷ আমরা পাকিস্তানকে নিয়ে ট্রল করি, ইন্ডিয়ানদেরকে বেয়াদব বলি, কিন্তু মাঠের খেলায় তারা আমাদের চেয়ে যথেষ্ট ভালো ৷ পাকিস্তানও আমাদের চেয়ে ভালো দল নিয়ে বিশ্বকাপ খেলসে, যদিও এটা মোটেও ওদের ইতিহাসের সেরা দল না ৷ আমাদের সাকিববাদে পারফর্ম করসে কে? হ্যাঁ সাইফের বোলিং কিংবা মোস্তাফিজের দু’টা ফাইভ উইকেট আর মুশফিকের মোটামুটি কিছু রানের কথা বলা যায় ৷ কিন্তু এইটুকু কী যথেষ্ট? মোটেই না ৷ চার বছর আগেও টিম যেখানে আটকায়ে ছিল মোটামুটি সেখানেই আসে ৷ তরুণ প্লেয়াররা দায়িত্ব নিতে পারতো না তখনও, এখনও কেউ তেমন কিছু করতে পারে নাই ৷ বোলিং যাচ্ছেতাই হইসে, ফিল্ডিংয়ে প্রচুর রান লিক হইসে, ক্যাচ ফেলসি প্রায় সব ম্যাচেই ৷ আমাদের ওপেনাররা বাজে ব্যাটিং করসে প্রায় পুরো টুর্নামেন্টেই ৷ প্ল্যানিং না করে, ১৩০ কি.মি. গতির বোলার নিয়ে ইংলিশ কন্ডিশনে ওয়ার্ল্ড কাপ খেলার ফলাফল, অপনেন্ট হেসে খেলে ৩০০+ রান করে গেসে আমাদের সাথে পুরো টুর্নামেন্টে ৷ আমরা বিশ্বকাপ শেষ করতেসি ৭ নম্বরে থেকে ৷ অথচ এটা নাকি আমাদের ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা দল!
আমাদের ন্যাশনাল টিমের সমালোচনা হওয়া উচিত, তীব্র সমালোচনা হওয়া উচিত ৷ আর প্লেয়ার আবেগ বাদ দিয়ে, খেলার প্রতি আবেগ আনাটা বেশী জরুরী ৷ অস্ট্রেলিয়া যদি ওয়ার্ল্ড কাপ জেতার পরেও স্টিভ ওয়াহর মত প্লেয়ারকে ক্যাপ্টেনসি থেকে সরায়ে দিতে পারে ভবিষ্যতের কথা ভেবে, ইন্ডিয়া যদি তাদের ইতিহাসের সেরা ২ জন ব্যাটসম্যানকে ভবিষ্যতের কথা ভেবে অবসর নিতে বাধ্য করতে পারে, আমরা কেন পারবো না? এসব করতে হবে ৷ খেলাটা টিমের কারো একার জন্য না, এটা দেশের জন্য ৷ আর আমাদের সংবাদ মাধ্যম গুলোও কেন জানি তীব্র সমালোচনায় যেতে পারে না ৷ দু’টা ম্যাচ হারার পরেও ইংল্যান্ডকে ওদের মিডিয়া ধুয়ে দিসে অথচ ইংল্যান্ড ওয়ার্ল্ড কাপ ফেবারিট, ওয়ার্ল্ড ক্লাস টিম ৷ এরকম পারফর্ম করে দেশে আসার পরেও দেখবেন আমাদের মিডিয়া সাকিবকে নিয়েই থাকবে ৷ সাকিবের ৬০০+ রান আর ১১ উইকেটের নিচে চাপা পড়ে যাবে দলের বাকিদের বাজে পারফর্ম্যান্স ৷ এভাবে করে একটা দল নিয়ে ওয়ার্ল্ড কাপ স্টেজে কিছুই জেতা যাবে না ভবিষ্যতে ৷ নিজেদের ইতিহাসের সেরা টিম নিয়ে বিশ্বকাপ স্টেজে যেয়ে পারফর্ম্যান্স যদি এমন হয় তাহলে বলতে হবে আমাদের সেরা দল অন্যদের অ্যাভারেজ দলের চেয়ে খুব বেশী কিছু না ৷ বোর্ডকে এখনই কঠিন আর শক্ত কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হবে ৷ নাহলে ২০২৩ সালেও এরকম পারফর্ম্যান্সের চেয়ে বেশী কিছু আমরা পাবো না! আর সমালোচনা করার সময় একে নিয়ে বলা যাবে না, ওকে নিয়ে বলা যাবে না, এসব বন্ধ হওয়া উচিত ৷ খেলতে না পারলে যেকোনো ধরণের গঠনমূলক সমালোচনা করাটা অবশ্যই যৌক্তিক ৷ কোন প্লেয়ার আগে কী করসে কিচ্ছু যায় আসে না তাতে ৷ Past is past. What only matter is what a player is doing in the present and what he can do in future!