Tuesday , 7 April 2020
শিরোনাম
চট্টগ্রামে আই আই ইউ সি’তে দেশীয় অস্ত্রের মহড়া, ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

চট্টগ্রামে আই আই ইউ সি’তে দেশীয় অস্ত্রের মহড়া, ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

চট্টগ্রাম থেকে, মিজানুর রহমান।। গতকাল (সোমবার) আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামে কতিপয় ছাত্রের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকার ব্যবসায়ীদের সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইইই ডিপার্টমেন্ট শিক্ষার্থী মিফতাউল হাসান আনাস বিশ্ববিদ্যালয়ের মূলফটকে অতিরিক্ত গতিতে মোটরবাইক চালালে কলা বিক্রেতা দিদারুল আলম (৪০) তাকে এই বিষয়ে অবহিত করলে সেই ছাত্র সংশ্লিষ্ট কলা বিক্রেতার সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে।

কথা কাটাকাটির এক পর্যায় আনাস নামের ওই ছাত্র হল থেকে আরও কয়েকজনকে ফোন করে গেটে আসতে বলে। এর পরেই তানভীর ( ২৬), সুব্রত মজুমদার শুভ (২৭), ইমু সহ (২৫) সহ ১৫-১৬ জনের একটি অংশ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে এলাকাবাসীর উপর অক্রমণ করে। এতে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ক্যাম্পাস ঘেরাও করে এবং চরম উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরী হয়। পরবর্তীতে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে সাময়িকভাবে এলাকাবাসী শান্ত হলেও এলাকাবাসী দাবী করেন বিশ্ববিদ্যালয় হল থেকে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের বের করে দিতে এবং কর্তৃপক্ষকে তারা সংশ্লিষ্ট ছাত্রদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বের করে দেওয়ার দাবীও তুলেন।

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলে এরকম অস্ত্রসহ ছাত্রদের উপস্থিতিতে সাধারণ ছাত্রদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

অস্ত্রসহ মহড়া ও মারামারির ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. কাওসার আহমদের সাথে কথা বললে ‘তিনি সত্যতা স্বীকার করেন এবং দ্রুত অস্ত্র উদ্ধারের ব্যাপারে আশ্বাস প্রদান করেন।’

এ বিশষে সীতাকুন্ডু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার(ওসি) সঙ্গে বার-বার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও শেষ পর্যন্ত যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য যে, গত ২ ফেব্রুয়ারি ছাত্রলীগের নাম করে কিছু অনিয়মিত ছাত্র ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে এবং আবাসিক হলগুলো থেকে বৈধ ছাত্রদেরকে বের করে দিয়ে অবৈধ ছাত্ররা হলে অবস্থান করছে। জানা গেছে ছাত্র নামধারী এই সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হলে অবস্থান করছে এবং তারা হলে নিয়মিত মদ ও গাজার আসর বসায়। বিভিন্ন সময় ছাত্রদেরকে মানসিক ও শারিরিক নির্যাতন করে।